গ্রামের ব্যবসার আইডিয়া

গ্রামের ব্যবসার আইডিয়া


Posted on: 2021-04-04 17:41:08 | Posted by: Shafiullah

গ্রামে আপনি চাইলেই যেকোনো ব্যবসা করতে পারবেন না। আপনার পরিবার বা বংশপরিচয়ের দিকে তাকিয়ে যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে হয়। শহরে কিন্তু এরকমটা হয় না। আজ গ্রামে সম্মানজনক একটি ব্যবসা নিয়ে আলোচনা করব। আর সেটি হল গ্রামে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র অথবা কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার।

এই ব্যবসাকে প্রচুর সম্ভাবনাময় ব্যবসা বলতে পারেন। গ্রামের ছাত্ররা বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং বা অনলাইনে আয়ের উপর অনেক আগ্রহী। যার জন্য  গ্রামের ছাত্রদের বড় একটি অংশ কম্পিউটার শিক্ষার জন্য শহর কেন্দ্রীক কোনো প্রশিক্ষন কেন্দ্রের উপর নির্ভর করতে হয়। এতে শিক্ষার্থীদের কষ্ট এবং খরচ দুটিই অতিরিক্ত ব্যয় করতে হয়। এখন আপনি উক্ত শিক্ষার্থী এবং গ্রামের তরুন সমাজকে কম্পিউটার পারদর্শী করে তাদের ভবিষ্যৎ এবং আপনার নিজের আয়ের মাধ্যম গড়ে তুলতে পারেন। এজন্য  আপনাকে গ্রামাঞ্চলের কোনো বাজারে যেখানে মানুষের সংখ্যা মোটামুটি বেশি সেখানে এ ধরনের প্রতিষ্ঠান দিতে হবে। আর সেখানে অবশ্যই নিরাপত্তা ব্যবস্থাও ভালো হতে হবে।আপনি নিজে কম্পিউটারের বিভিন্ন বিষয়ের উপর দক্ষ হতে হবে, এবং আরও দু- তিন জন সহকারীর প্রয়োজন হবে। যদি আপনি কম্পিউটারের উপর বিশেষজ্ঞ না হন তাহলেও চলবে।


সবকিছুর উপরে আপনাকে মানের উপর খেয়াল রাখতে হবে। শিক্ষার্থীদেরকে ভালো মানের প্রশিক্ষণ দিতে হবে। তাহলে আপনার ব্যবসা সফল হবে। আপনারা কম্পিউটারের বিভিন্ন বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ দিতে পারেন। যেমন, মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ারপয়েন্ট, ডাটা এন্ট্রি, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং ইত্যাদি  বিষয়ের উপর ট্রেনিং প্রদান করতে হবে। ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে করতে হয় ছাত্রদেরকে এটাও শিখিয়ে দিবেন। এতে আপনাদের কোর্সের ফলাফল ছাত্ররা ভোগ করতে পারবে। এবং যখন ছাত্ররা কোর্স শেষে নিজেরা আয় করতে পারবে তখন কোর্সের চাহিদা বেড়ে যাবে।

আপনাকে চার পাঁচটি কম্পিউটার, চেয়ার টেবিল, ইন্টারনেট সংযোগের প্রয়োজন হবে। একটি দেকান নিয়ে সেটিকে দুটি অংশে ভাগ করে একটি অফিসরুম হিসেবে এবং অপরটি প্রশিক্ষণরুম হিসেবে নেওয়া যেতে পারে।দোকানের এডভান্স, ফার্নিচার, কম্পিউটার সহ ২.৫ লক্ষ টাকার মধ্যে  হয়ে যাবে।
কি পরিমাণ টাকা লাগতে পারে তার একটি হিসাব নিচে দেওয়া হল....
১. চারটি কম্পিউটার বাবদ- (৪০০০০×৪)= ১৬০০০০৳
২.ফার্নিচার বাবদ- ৩০০০০৳
৩.দোকানের অ্যাডভান্স বাবদ- ২০০০০৳
৪. বিজ্ঞাপন বাবদ- ১০০০০৳
৫.সরকারি লাইসেন্স রেজিষ্ট্রেশন -১০০০০৳
আমাদের মোট দাড়ায় ২৩০০০০৳।



এবার আসি কি পরিমাণ আয় হবে...

আসলে আপনার আয় মুলত দুইটি জিনিসের উপর নির্ভর করবে। প্রথমটি হল আপনার সেবার মান। আপনারা যদি ভালোমানের কোর্স প্রদান করতে না পারেন তবে ছাত্র তেমন একটা আসবে না। তাই প্রশিক্ষণের মানের দিকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। আর দ্বিতীয়টি হল আপনার প্রচার।
প্রতিষ্ঠানের প্রচারণার জন্য ভালো এবং কার্যকরী বিজ্ঞাপন প্রচার করতে হবে। বিভিন্ন স্কুল কলেজের নির্বাচিত ছাত্র-ছাত্রীদের  বিনামূল্যে অথবা বিশেষ ছাড়ে কোর্সে অংশগ্রহণ করার সুযোগ দিবেন। তাছাড়া ব্যানার, পোস্টারের মাধ্যমেও বিজ্ঞাপন চালিয়ে যাবেন।
আপনার প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর আপনি ৩০০০০৳ থেকে, ৫০০০০৳ খুব সহজেই আয় করতে পারবেন। গ্রামে ব্যবসা করে এই পরিমান আয় খুবই লাভজনক।
পাশাপাশি এই ব্যবসা সম্মানজনকও বটে।
শুধু প্রশিক্ষণ নয় আপনার কম্পিউটারগুলো দিয়ে আপনি চাইলে আরও কয়েক ধরনের ব্যবসা করতে পারেন। যেমন আপনি আপনার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রকে সাইবার ক্যাফে হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। ঘন্টা হিসেবে আপনি ইন্টারনেট সংযোগসহ কম্পিউটার ভাড়া দিতে পারেন। শুধু তাই নয় আপনার এলাকার মানুষের চাকরির আবেদন বা ভিসার আবেদন, ছাত্রদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির আবেদনের কাজ ইত্যাদি  আপনি করে দিতে পারেন।
আবার আপনাদের ক্লাস ভিডিও করে ইউটিউব ফেসবুকে থেকেও আয় করতে পারেন।
সবশেষে এটা বলব যে ব্যবসা করা খুব সহজ নয় আর পরিশ্রমী হলে খুব কঠিনও নয়। পরিশ্রম করতে হবে মেধা খাটিয়ে। তাহলেই সফল হবেন।

আজ যে ব্যবসাটি নিয়ে আলেচনা করা হয়েছে সেটি নিয়ে কোনো প্রশ্ন বা মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন। ধন্যবাদ।


জনপ্রিয় পণ্য

সাম্প্রতিক পণ্য

Leave a Comment:

Comment as:

alibaba & Import Export expert

সি এন্ড এফ, আমদানি, আলিবাবা নিয়ে যেকোনো সমস্যায় আমাকে ফেসবুকে মেসেজ করুন

এখানে ক্লিক করুন
2017 © 2021 eibbuy. All Rights Reserved.
Developed By Takwasoft