জিপিএস ট্র্যাকার দাম

জিপিএস ট্র্যাকার দাম

দাম : ৩০০০/= ( ভয়েস ছাড়া) - ৪০০০/=( ভয়েস সহ)
সরবনিম্ম অর্ডার : ১

মোবাইল নাম্বার : 01674801833

যোগাযোগ করুন

সাপ্লাইয়ারের তথ্য

KBM Computer Motijheel Dhaka Bangladesh

01674801833

Contact Supplier

পাইকারি পণ্যের দাম সর্বদা পরিবর্তনশীল । পণ্যের বর্তমান দাম জানতে উপরের মোবাইল নম্বরে সাপ্লায়রকে সরসরি ফোন করুন। বিদেশি সাপ্লায়ার কে LC বা TT তে দাম পরিশোধ করুন ৷ দেশী সাপ্লায়ার কে ক্যাশ অন ডেলিভারী বা ফেস টু ফেস ক্রয় বিক্রয় করতে পারেন ৷ আপনার অসাবধানতায় কোন প্রকার ফ্রডের জন্য আমরা দায়ী নয় ৷ অনলাইনে পন্য ক্রয়ের আগে সমস্ত সিক্যুরিটি গ্রহন করে নিন ৷

eibbuy Ads

Product details

রিয়েল টাইম ট্র্যাকিং

আপনার গাড়ি ট্র্যাকিং এর জন্য রয়েছে ইউজার ফ্রেন্ডলি ওয়েব ইন্টারফেস । শুধুমাত্র কম্পিউটার কিংবা মোবাইলে লগইন করুন এবং ট্রাক করতে থাকুন আপনার গাড়ি মোটরবাইক ।

ওভার স্পীড নোটিফিকেশন

নির্দিষ্ট করে দেওয়া গাড়ির গতি সীমার চেয়ে যখনই গাড়ির গতি বেশী হবে তখনি আপনাকে আপ্স দিয়ে নোটিফিকেশন দিবে।

রিমোট ইঞ্জিন অন অফ সিস্টেম

জরুরি অবস্থায় মাত্র একটি কমান্ড দিয়েই বন্ধ করে দিতে পারবেন আপনার গাড়ির ইঞ্জিন।

পাওয়ার ডিসকানেকশন বিজ্ঞপ্তি

এখন আপনাকে মানচিত্রে যেতে বা অবস্থান সন্ধানের জন্য চিন্তা করার দরকার নেই। এর পিছনে গ্লোবাল পজিশনিং সিস্টেম (জিপিএস) প্রযুক্তি কাজ করছে। জিপিএস ট্র্যাকিং আপনাকে কম্পিউটার বা সেলফোনের মাধ্যমে আপনার গাড়ির অবস্থান থেকে সমস্ত তথ্য সহজেই অ্যাক্সেস করতে দেয়। গাড়ি বা মোটরসাইকেলের চুরি রোধ করা যায়, যাতে পরিবারকে সুরক্ষিত রাখা যায়।

বাজার বিশ্লেষকরা বলেছেন, বিভিন্ন ক্ষেত্রে উন্নত প্রযুক্তি গ্রহণের ফলে জিপিএস ডিভাইসের বাজার বাড়বে। ২০২৩ সালের মধ্যে জিপিএস ডিভাইস বা ডিভাইসগুলির বাজার দাঁড়াবে প্রায় ২১,০০০ কোটি টাকা। বাজারটি প্রতি বছর ১১.৯ শতাংশ হারে বাড়ছে। জিপিএস ট্র্যাকিং ডিভাইসের বাজার মূলত যানবাহন ট্র্যাকিং বা যানবাহনের অবস্থানের মতো বিষয়ের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে।

চলন্ত বস্তুর অবস্থানের তথ্য ট্র্যাকিং ডিভাইসের ভিতরে সংরক্ষণ করা যেতে পারে বা নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রে (কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ ইউনিট) প্রেরণ করা যায়। জিপিএস ট্র্যাকারে একটি জিপিএস ডিভাইস থাকে যা সংকেত গ্রহণ করে। পদ্ধতিটিতে ওয়্যারলেস, কৃত্রিম উপগ্রহ বা সেলুলার মডেম ব্যবহার করা হয়েছে, যা সহজেই ডিভাইসে ধরা পড়ে। এটি ছোট আকারের মোবাইল ফোনের মতো বিষয়গুলিও সনাক্ত করতে পারে। জিপিএস ট্র্যাকিং ডিভাইসের অবস্থান জ্যামিতিক পদ্ধতি ব্যবহার করে মানচিত্রে বস্তুর অবস্থান প্রদর্শন করতে পারে। জিপিএস ট্র্যাকিং সিস্টেমটি বেসিক, ইন্টারমিডিয়েট এবং অ্যাডভান্সড তিনটি বিভাগে বিভক্ত করা যেতে পারে।

দেশের জিপিএস ট্র্যাকিং সার্ভিসের একজন কর্মকর্তা বলেছিলেন যে স্মার্টফোন বা ট্যাব ব্যবহারের কারণে জিপিএস ডিভাইসের চাহিদা বাড়ছে। এটি যেকোনও ধরণের আবহাওয়ায় যেকোনও অবজেক্টের অবস্থান সঠিকভাবে সনাক্ত করতে পারে। অবস্থান সনাক্ত করতে এই বৈশিষ্ট্যটি ব্যবহার করে এই উদ্দেশ্যে জিপিএস ব্যবহার করা যেতে পারে। যে কোনও ধরণের স্মার্টফোন এবং বিনামূল্যে অনেকগুলি অ্যাপ্লিকেশন এটি করার জন্য যথেষ্ট।

দেশে জিপিএস ডিভাইসের ব্যবহারও বাড়ছে। গাড়ি বা মোটরসাইকেল চুরি রোধে যানবাহন ট্র্যাকার প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। এটি এমন প্রযুক্তির সংমিশ্রণ যা গাড়ি মালিককে বাড়িতে তার গাড়ির গতি এবং গতিবিধি সম্পর্কে তথ্য পেতে দেয়। যানবাহন ট্র্যাকার ডিভাইসটি দেখতে সেলফোনের মতো। অনেক সময়, ক্যামোফ্লেজ তৈরির জন্য ডিভাইসের আকার পৃথক হতে পারে। ডিভাইসটি গাড়ির ইঞ্জিনের একটি অংশে মাউন্ট করা হয়েছে। ঘরে বসে গাড়ির গতি সম্পর্কে ইন্টারনেটের মাধ্যমে জানা যায়। এই প্রযুক্তি ব্যবহারের সাথে সাথে গাড়ির ক্ষেত্র নির্ধারণও করা যেতে পারে।

মোবাইল ফোন পরিষেবা প্রদানকারী গ্রামীণফোন, রবি এবং আরও অনেক প্রযুক্তি সংস্থা দেশের যানবাহনের অবস্থান চিহ্নিত করার সুবিধা রয়েছে। গ্রামীণফোনের এক বিশেষজ্ঞ বলেছেন যে যানবাহন ট্র্যাকিং সুবিধা পেতে হলে গাড়িতে একটি বিশেষ জিপিএস ডিভাইস স্থাপন করতে হবে। এটি জিপিআরএসের মাধ্যমে ওয়েবে এবং এর সার্ভারগুলিতে বিশদ তথ্য সরবরাহ করে। ব্যবহারকারীরা ওয়েবসাইট, মোবাইল এসএমএস এবং নির্দিষ্ট কল সেন্টারের মাধ্যমে গাড়ির অবস্থান জানতে পারবেন। এটি ইন্টিগ্রেটেড প্রযুক্তি। ডিভাইসটিতে একটি সিম কার্ড এবং মডিউল রয়েছে। তথ্য অবস্থান একটি কৃত্রিম উপগ্রহ থেকে আসে। এটি সার্ভারে ইন্টারনেটের মাধ্যমে সংরক্ষণ করা হয়। পরে এটি ওয়েব পরিষেবা বা এসএমএসে বিভিন্ন উপায়ে পাওয়া যায়।
স্পাই সিম ডিভাইস

এটি লোকেশন ট্র্যাকার সহ একটি সিম ডিভাইস। এটি খুব সহজেই কাজ করে। এটি আপনার গুরুত্বপূর্ণ কাজের মধ্যে আটকাবে না। এটি অন্যান্য অনুরূপ তুলনায় দুর্দান্ত কাজের ফ্রিকোয়েন্সি আছে। এটি ইনস্টল করা সহজ। দয়া করে কালো অংশটি খুলুন এবং তারপরে স্ট্যান্ডার্ড সাইজের সিম কার্ডটি .ঢোকান। আপনি যখন সিম কার্ড প্রবেশ করান তখন লাল আলো একবারে জ্বলজ্বলে হয়ে যায় এবং বন্ধ হয়ে যাবে। এখন আপনি সেই সিম কার্ড নম্বরটি্তে কল করুন যা আপনি পণ্যটিতে প্রবেশ করিয়েছেন। আপনি একটি ডায়ালারের স্বর শুনবেন এবং তারপরে আপনার কল সংযুক্ত হবে। যখনই কোনও ধরণের শব্দ ডিভাইস দ্বারা সনাক্ত করা যায় তবে এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেই নাম্বারে কল করবে। ১০০% গ্রাহক সন্তুষ্টি এবং নিরাপদ এবং দ্রুত সরবরাহের কারণে স্পাই সিম ডিভাইস বৃহত্তম অনলাইন দোকান আজকেরডিল ডট কম থেকে কিনুন। এটি অন্যদের তুলনায় তুলনামূলকভাবে যুক্তিসঙ্গত দামে দিয়ে থাকে।  
বাস, ট্রাক, যানবাহন ট্র্যাকার:

বাস, ট্রাক, যানবাহন ট্র্যাকার একটি আজীবন ওয়ারেন্টি ট্র্যাকার। আপনি ৬ মাসেরও বেশি রেকর্ড পেতে পারেন। গাড়িটি কোন দিকে গেছে, কোথায় এটি দাঁড়িয়ে ছিল, কতবার গাড়ির এ / সি চালু হয়েছিল তা আপনি জানতে পারবেন। আপনি যানবাহন ট্র্যাকিং পরিষেবাতে লাইসেন্স সহ একটি যানবাহন ট্র্যাকার ব্যবহার করতে পারেন। একটি সস্তা ট্র্যাকার বিআরটিসি লাইসেন্স ছাড়াই যে কোনও সময় ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে এবং আপনি আপনার ব্যাটারিও ক্ষতি করতে পারেন। এটি যানবাহনের জন্য একটি বিশেষভাবে ডিজাইন করা ট্র্যাকার। এটি ব্যাটারিতে চাপ তৈরি করে না। আপনার যানবাহন, বাস বা ট্রাকের অবস্থান জানার পাশাপাশি আপনি জেলাতে যেখানেই থাকুন না কেন, আমাদের ডিভাইসের সাহায্যে আপনি বিশ্বের যে কোনও জায়গা থেকে গাড়ি বা বাসের লাইভ ছবি দেখতে পারবেন। আপনি একটি মোবাইল দিয়ে ইঞ্জিনটি বন্ধ করতে পারেন। ক্যামেরাগুলি নাইট ভিশন। সবচেয়ে দ্রুত অনলাইন ডেলিভারি রেকর্ড এবং ক্লায়েন্টের সন্তুষ্টি অর্জনের সাথে বৃহত্তম অনলাইন শপ আজকেরডিল ডট কম থেকে যুক্তিসঙ্গত মূল্যে এই ট্র্যাকারটি এখনই কিনুন।  
মিনি এ ৮ যানবাহন ট্র্যাকার

মিনি এ ৮ যানবাহন ট্র্যাকার তাইওয়ানের নতুন প্রযুক্তি। এটি একটি মিনি পোর্টেবল ডিভাইস। এটির একটি পরিষ্কার ভয়েস এবং দীর্ঘ স্ট্যান্ডবাই সময়কাল রয়েছে। এটি পরিচালনা করা সহজ এবং একটি শক্তিশালী পারফরম্যান্স রয়েছে। এই ট্র্যাকারটি উন্নত ট্র্যাকিং বা পর্যবেক্ষণ, বিশেষত জিপিএস, জিএসএম এবং জিপিআরএস প্রযুক্তি ব্যবহার করে যানবাহন ট্র্যাকিংয়ের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। এটি কারভান, নৌকো, মোটর হোমস, ট্রাক, ভ্যান এবং নির্মাণ যন্ত্রপাতিগুলির মতো তাদের অবস্থান ট্র্যাক করতে যে কোনও যানবাহনে ব্যবহার করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। আজকেরডিল ডট কম একটি অনলাইন মার্কেটপ্লেস যেখানে আপনি মূল পণ্য গ্যারান্টি সহ ন্যূনতম মূল্যে এই যানবাহন ট্র্যাকারটি পেতে পারেন।


গাড়ির অবস্থান যেভাবে ট্র্যাক করবেন

বর্তমানে অনেকেই গাড়ি ব্যবহার করতে শুরু করেছেন। আর তাই গাড়ি চুরির ঘটনাও ঘটছে অহরহ। গাড়ি চুরি হওয়ার পূর্বেই গাড়িকে সতর্কতার সাথে নিরাপদ স্থানে রাখা উচিত। কিন্তু তারপরও চুরি হওয়াটা ঠেকানো সম্ভব নয়। আর সেজন্য আপনাকে গাড়ি ট্র্যাকিংয়ের ব্যবস্থা রাখতে হবে। চলুন জেনে নেয়া যাক, কীভাবে আপনার গাড়িকে ট্র্যাক করবেন। গাড়িকে ট্র্যাক করার জন্য দুটো পদ্ধতির ব্যবহার হয়ে থাকে। প্রথমটা হচ্ছে, যেকোনো জিপিএস ট্র্যাকার ব্যবহার করা ও দ্বিতীয়টি হচ্ছে, কমদামী মোবাইল ও ম্যাপিং সফটওয়্যার দিয়ে ট্র্যাক করা।

যেকোনো গাড়িকেই ট্র্যাক করা সম্ভব
সেরা ৫টি জিপিএস ট্র্যাকার
১. স্পাইটেক এসটিআইজিএল থ্রি হান্ড্রেড মিনি পোর্টেবল রিয়েল টাইম জিপিএস ট্র্যাকার

স্পাইটেক জিএল থ্রি হান্ড্রেড হচ্ছে অ্যামাজনে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া যানবাহন ট্র্যাকার। এটার সাইজ ছোটো একটা ম্যাচবক্সের সমান। প্রায় ১৫ ফুট দূর থেকেও এটা যানবাহনের অবস্থান পিনপয়েন্ট করতে পারে। এই ট্র্যাকারকে গাড়ির যেকোনো জায়গায় চুম্বকের মতো করে আটকে রাখা যায়। এই ট্র্যাকারের সাথে একটি এস ও এস বাটন পাওয়া যায়। যেটার মধ্যে চাপ পড়লেই সেটার সঠিক অবস্থান ইউজারের মোবাইলে চলে যায়। স্পাই টেক ট্র্যাকারটি একইসাথে এসএসএল সিকিউরড এবং পাসওয়ার্ড সুরক্ষিত। অসুবিধা হচ্ছে এই ট্র্যাকারের ব্যাটারি লাইফ মাত্র দুই সপ্তাহ। তবে ব্যাটারি লাইফ বাড়ানোর জন্য চাইলে অতিরিক্ত একটি ব্যাটারি কিনতে পারেন।

২. মোটো সেইফটি ওবিডি ভেহিকল মনিটরিং সিস্টেম

মোটো সেইফটি ট্র্যাকার ড্রাইভারকেও ট্র্যাক করতে ব্যবহার করা হয়। গাড়ির অবস্থানের সাথে এটি গাড়ির গতি, ব্রেইকিং সিস্টেম এবং গতির উঠানামাও ট্র্যাক করতে সম্ভব। প্রতিদিনের গাড়ির অবস্থা সম্পর্কে এটি ইউজারকে রিপোর্ট পাঠাতেও সক্ষম। এটা মূলত প্যারেন্টাল গাইডের অন্তর্ভুক্ত। গাড়ির ড্যাশবোর্ডের নিচে ডায়াগনস্টিক পোর্টের সাথে যুক্ত করে এই মোটো সেইফটি ট্র্যাকার সংযোগ করা যায়। রিপোর্ট কার্ড প্রেরণের মাধ্যমে গাড়ির মালিক চাইলে ড্রাইভার সম্পর্কেও ধারণা পেতে পারে।

এর অসাধারণ একটি ফিচার হচ্ছে, আপনি ঘরে বসেই জানতে পারবেন যে, আপনার গাড়িতে কতটা জ্বালানী রয়েছে। গাড়ির মালিক চাইলে ঘরে বসেই ট্র্যাকারে সংকেত পাঠাতে পারবে, সবকিছু রেকর্ড করা হচ্ছে। যদিও এর বিশেষ কিছু সমস্যা হচ্ছে, এটা গুগল ম্যাপের মাধ্যমে লোকেশন সিলেক্ট করে থাকে, যার ফলে সঠিক স্থান ও দুরত্ব সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায় না।
৩. অ্যামেরিকালক মিনি পোর্টেবল জিপিএস ট্র্যাকার

অ্যামেরিকালক ট্র্যাকার মূলত জিএলথ্রি হান্ড্রেডের আপডেটেড ভার্সন। এটা অনেক ছোটো আকারের মধ্যে পাওয়া যায়। যার ফলে খুব সহজেই ব্যবহারযোগ্য। এটার ব্যাটারি লাইফও অন্যান্য ট্র্যাকারের থেকে বেশ ভালো। এর ফি দেয়ার ক্ষেত্রেও আপনাকে প্রত্যেক বছরের জন্য অপেক্ষা করতে হবে না। আপনি চাইলে কিস্তিতেও এর বিল দিতে পারবেন। রিয়েল টাইম ট্র্যাকিংয়ের জন্য এই ট্র্যাকার অসাধারণ সার্ভিস দিয়ে থাকে।

৪. ম্যাসট্র্যাক ওবিডি রিয়েল টাইম জিপিএস ভেহিকল ট্র্যাকার

ম্যাসট্র্যাক ট্র্যাকার প্রায় অটো টেকনিশিয়ানের মতোই কাজ করে থাকে। এটাও গাড়ির ড্যাশবোর্ডের নিচে থাকা ডায়াগনস্টিক পোর্টের সাথে সংযুক্ত করে রাখা যায়। এটা আপনাকে রিয়েল টাইম লোকেশন জানাবে, অতিরিক্ত গতি সম্পর্কে জানাবে এবং কখন গাড়িকে মেইনটেনেন্সের জন্য নিতে হবে সেটাও জানাবে। যদিও এর মোট খরচ প্রায় ৩০০ ডলারের কাছাকাছি কিন্তু আপনি চাইলে কিস্তিতেও তা শোধ করতে পারবেন।

৫. অপ্টিমাস রিয়েল টাইম জিপিএস ট্র্যাকার

মাত্র ২.৭ ইঞ্চি সাইজের এই ট্র্যাকার মূলত যেকোনো গাড়ির মধ্যেই ব্যবহার করা যায়। এটা প্রায় প্রাইভেট ইনভেস্টিগেটরদের মতোই কাজ করে থাকে। আপনি চাইলে চুম্বক দিয়ে এটাকে যেকোনো জায়গায় লাগিয়ে রাখতে পারবেন কিংবা চাইলে গাড়ির ফ্রেমের সাথে যেকোনো স্থানেই সেট করে রাখতে পারবেন। অপ্টিমাস রিয়েল টাইম ট্র্যাকার থেকে আপনি ট্র্যাকারের অবস্থান, প্রত্যেক জায়গায় কতক্ষণ অবস্থান করেছে সেটার অবস্থা, পার্কিং টাইম, মুভমেন্ট টাইমসহ আরো অনেক তথ্য বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন। এটাতেও পাবেন একটি ইন-বিল্ট এস ও এস বাটন।

উপরের এই পাঁচটি জিপিএস ট্র্যাকার দিয়ে আপনি খুব সহজেই আপনার গাড়িকে ট্র্যাক করতে পারবেন। এই ধরণের ট্র্যাকারের ইন্সটলেশন পদ্ধতিও ততটা জটিল নয়। ইন্সটল করার জন্য আপনাকে যা করতে হবে।

১. ডিভাইস ম্যানুফ্যাকচারেরর ওয়েবসাইট থেকে একটি পার্সোনাল অ্যাকাউন্ট করতে হবে।

২. সেখান থেকে ডিভাইসটি অন করে দিতে হবে। তারপর সিনক্রোনাইজেশনের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

৩. এখন আপনি সহজেই সেই ডিভাইসের তথ্য আপনার মোবাইলে অ্যাপের মাধ্যমে বা ম্যানুফ্যাকচারের সাইট থেকে দেখতে পাবেন।

কমদামী মোবাইল ও ম্যাপিং সফটওয়্যার দিয়ে যেভাবে গাড়িকে ট্র্যাক করবেন

প্রথমে ভালো ডেটা প্ল্যানসহ একটি প্রিপেইড সিম কিনুন। ঘরে যদি কমদামী মোবাইল থেকে থাকে তাহলে সেটাকেই ব্যবহার করুন, নয়তো চাইলে এখান থেকে কমদামে মোবাইল ক্রয় করতে পারেন। মাত্র ৩,০০০ টাকার মধ্যেই বেশ ভালো মানের মোবাইল পেয়ে যাবেন। এখন আপনার দরকার পড়বে একটি জিপিএসের। যেটা ট্র্যাকার হিসেবে কাজ করবে। এখন আপনি চাইলে গুগল প্লে স্টোর থেকে ফ্যামিলি লোকেটর অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারেন। এটা বেশ ভালোমানের একটি জিপিএস ট্র্যাকার হিসেবে কাজ করবে। এছাড়াও অ্যাকুট্র্যাকিং অ্যাপটিও অসাধারণ সার্ভিস দিয়ে থাকে।

প্রথমে আপনার ফোনের ইন্টারনেট অ্যাক্সেস এনেবল (Internet Acces) করুন। ফোনটাকে এবার মিউটে নিয়ে যান। এবার ফোনের জিপিএস অপশনে যান। এখন ম্যাপিং অ্যাপ থেকে সেটার ট্র্যাকার কোডটা নিয়ে এই জিপিএস অপশনে সেটা করে দিন। এখন আপনার ফোন ট্র্যাকিং শুরু করার জন্য পারমিশন চাইবে। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে ফোন ট্র্যাকিং করে আপনাকে অবস্থান দেখানো শুরু করবে। এখন আপনার ফোনে সম্পূর্ণ চার্জ দিয়ে আনুন। চাইলে গাড়ির ব্যাটারির সাথেও ফোনের ব্যাটারি বা চার্জার যুক্ত করে দিতে পারেন। এতে কখনোই চার্জ শেষ হবে না। তারপর গাড়ির মধ্যে যেকোনো জায়গায় ফোনটা রেখে দিন। এবার আপনার ব্যবহৃত ফোন দিয়েও আপনার গাড়িকে ট্র্যাক করতে পারবেন।

Review this Product:

সাপ্লায়ার কে মেসেজ করুন

I have read and agree to the Privacy Policy.

আরো পণ্য সমূহ

TEUTONS Metallic Knight 64GB USB 3.1 Gen-1 Flash Drive

1,050৳ - 1,050৳

বিস্তারিত পড়ুন

ZOTAC GAMING GeForce RTX 2060 AMP 6GB GDDR6 Graphics Card

48,000৳ - 48,000৳

বিস্তারিত পড়ুন

Dahua XVR5116HS-X 16 Channel Penta-brid XVR

9,800৳ - 9,800৳

বিস্তারিত পড়ুন
2017 © 2021 eibbuy. All Rights Reserved.
Developed By Takwasoft