অল্প টাকায় শুরু করুন মুভিং কোম্পানি ব্যবসা


Posted on: 2020-06-12 15:32:13 | Posted by: Shafiullah

শুধু টাকা হলেই ব্যবসা  শুরু করা যায় এমন ধারণাটা সঠিক নয়। আপনি যা করতে চাচ্ছেন তার প্রতি আপনার আকর্ষণ, জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা কতটুকু আছে,  তার ওপর আপনি কতটুকু সময় ও শ্রম দিতে পারবেন এবং সর্বোপরি কাজটি শুরু করার জন্য আপনার কতটুকু প্রস্তুতি রয়েছে। শুধু অমুক ব্যবসায় অনেক লাভ এই কথার লোভে পড়ে ব্যবসা শুরু করাটা স্রেফ বোকামি।

মুভিং কোম্পানি ব্যবসা
আজকের পর্বে নতুন একটি ব্যবসার কথা নিয়ে লিখব। আপনি কীভাবে একটি সফল মুভিং কোম্পানি গড়ে তুলতে পারেন তার একটি দিকনির্দেশনা দেব।  আপনার কাছে মনে হতে পারে এটা আবার নতুন কী। কিন্তু বাস্তবতা হলো একটি আধুনিক পেশাদারি মুভিং কোম্পানির সঙ্গে আমাদের দেশের প্রচলিত মুভিং  ট্রাক কোম্পানির অনেক পার্থক্য রয়েছে।

প্রাথমিক কথা
শহরগুলোতে গড়ে ৬৫ ভাগ লোক ভাড়া বাসায় থাকেন। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে সেটা ৮০ ভাগেরও ওপরে। ভাড়া সাধারণত একটি নির্দিষ্ট মেয়াদে হয়। যেমন দুই বছর, চার বছর বা পাঁচ বছর। ভাড়াচুক্তি যদি পুনরায় নবায়ন না হয় তবে ভাড়াটিয়াকে আবার নতুন জায়গা খুঁজতে হয় এবং আসবাবপত্রসহ নতুন  জায়গায় স্থানান্তরিত হতে হয়। একে স্থানান্তর (বাসা-অফিস বদল) বা ইংরেজিতে মুভিং বলা হয়। আমাদের দেশে কেউ যদি মুভ হন তবে তিনি কোনো ট্রাক কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করেন অথবা পরিচিত কোনো পিকআপ ভ্যান ও ২-৪ জন শ্রমিকের সাহায্য নিয়ে মুভ হন। হাতেগোনা দু-একটা মুভিং কোম্পানি থাকলেও তারা তেমন পেশাদারি নয়। অনেক সময় মুভ হতে গিয়ে আপনার দামি আসবাবপত্র নষ্ট হয়। মুভারদের সঠিক ও পেশাদারি মুভিংয়ের  জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা না থাকার কারণে আপনার দামি ফার্নিচারগুলো যেমন ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তেমনি মুভিংয়ের পর সেগুলো সঠিকভাবে সন্নিবেশ  করতে না পারটাও আপনার জন্য কষ্টের অভিজ্ঞতা হতে পারে। একজন পেশাদারি মুভার আপনাকে সময়ের সঙ্গে সঠিক পরিকল্পনা অনুযায়ী স্বস্তিদায়ক মুভিংয়ের অভিজ্ঞতা দিতে পারে। একটি সফল মুভিং কোম্পানি গড়ে তুলতে হলে আপনাকে ব্যবসাটির গভীরে চিন্তা এবং আমাদের দেশে বাস্তব প্রেক্ষাপট  চিন্তা করতে হবে। আমেরিকাতে বছরে গড়ে ১৬ বিলিয়ন ডলার মুভিং কোম্পানিগুলোতে লেনদেন হয়।
আমাদের দেশের প্রেক্ষাপট ভিন্ন। আমাদের দেশে গ্রামের লোকজন নিজেদের বাড়িতে বসবাস করেন। কিন্তু শহরের চিত্র ভিন্ন। বিশেষ করে বড় বড় শহরগুলোতে  লোকজন ভাড়া বাসায় থাকেন এবং সময়ে সময়ে স্থানান্তরের প্রয়োজন হয়। এ ছাড়া বিভিন্ন অফিস, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও সরকারি, বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বদলির কারণে স্থানান্তরের প্রয়োজন হয়। শুধু ঢাকাসহ যদি বিভাগীয় শহরগুলোকে ধরি যেখানে প্রতিদিন অনেক মানুষ বাসাবাড়ি, অফিস, ব্যবসাবাণিজ্য স্থানান্তর করছেন। অনেক সরকারি, বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী এক শহর থেকে অন্য শহরে বদলি হয়ে যাচ্ছেন। সুতরাং এই ব্যবসাটি শুরু করতে হলে শহরভিত্তিক শুরু করতে হবে।
এ জন্য আপনি মুভিং কোম্পানি শুরু করার আগে জানতে হবে কীভাবে মুভিং কোম্পানি কাজ করে ও কীভাবে পরিচালিত হয়। যদি সম্ভব হয় তবে কোনো মুভিং কোম্পানির সঙ্গে কিছুদিন কাজ করলে ভালো অভিজ্ঞতা হবে। তাতে আপনি বুঝতে পারবেন কী ধরনের মুভিং কোম্পানি তৈরি করবেন। পরিচালনার ধরন কী হবে, কী রকম যন্ত্রপাতি ও লোকবলের প্রয়োজন হবে ইত্যাদি।

পরিকল্পনা তৈরি করুন

যদিও মুভিং কোম্পানি ব্যবসা অন্যান্য ব্যবসার মতো নয়, কিন্তু প্রত্যেক ব্যবসার মূল বিষয়গুলো একই। এ জন্য মুভিং কোম্পানি শুরু করার আগে ব্যবসায়িক
পরিকল্পনা তৈরি করুন। সত্যি বলতে কী মুভিং কোম্পানি শুরু করতে হলে আপনাকে অন্যান্য ব্যবসার তুলনায় আরও বেশি পরিকল্পনা করতে হবে। আপনার
কোম্পানির গঠন কেমন হবে, কীভাবে সম্ভাবনা নিরূপণ করবেন, কী কী সেবা/পণ্য অফার করবেন, কোথায় স্থান নির্ধারণ করবেন, কীভাবে মার্কেটিং পরিকল্পনা করবেন, কীভাবে লোকবল নিয়োগ ও আয়-ব্যয়ের পরিকল্পনা করবেন, কীভাবে টার্গেট গ্রাহক নির্বাচন করে তাদের কাছে পৌঁছাবেন ইত্যাদি।

এ ছাড়া আপনি কি শুধু আবাসিক গ্রাহকদের জন্যই সেবা দেবেন নাকি শুধু বাণিজ্যিক গ্রাহকদের জন্য, নাকি উভয়ই? কী ধরনের কোম্পানি তৈরি করতে কী কী প্রস্তুতি লাগে, আপনার আর্থিক পরিকল্পনা করতে হবে এই সবই আপনার ব্যবসায়িক পরিকল্পনার অংশ। আমার পরামর্শ হলো, আপনি যেকোনো কাজ শুরু করার আগে পরিপূর্ণ ব্যবসায়িক পরিকল্পনা তৈরি করুন এবং একজন ব্যবসায়িক পরামর্শকের সাহায্য নিন।

যেভাবে মুভিং ব্যবসা পরিচালনা করবেন?
মুভিং ব্যবসা অন্য যেকোনো ব্যবসার মতো নয়। এই শুরু করার আগে জানতে হবে কীভাবে এই ব্যবসা কাজ করে ও কীভাবে পরিচালনা করতে হয়। আমি আগেই বলেছি আপনাকে যদি ভালো প্ল্যান তৈরি করতে হয়, তবে ভালো হয় কিছুদিন কোনো মুভিং কোম্পানির সঙ্গে কাজ করে অভিজ্ঞতা অর্জন করে নিলে। এখানে আপনার দুটি বিষয়ে গভীর জ্ঞানের প্রয়োজন আছে। একটি হলো মুভিং ব্যবসার ওপর জ্ঞান ও অন্যটি হলো সাধারণ ব্যবসার জ্ঞান। আপনি যদি না  বোঝেন কীভাবে মুভিং ব্যবসা পরিচালিত হয় তাহলে আপনার জন্য সফল হওয়া কঠিন। ব্যবসার শুরুতে হয়তো আপনাকে অন্যের ওপর নির্ভর হতে হবে।  অন্যের কাছ থেকে পরিবহন ভাড়া করা। প্রশিক্ষিত লোকদের দিনের জন্য নিয়োগ করা। মুভিংয়ের সরঞ্জাম সংগ্রহ করা ইত্যাদি। আস্তে আস্তে ব্যবসা যখন  বড় হবে তখন সবকিছু নিজস্ব করে নিতে হবে।

মুভিং ছোট হোক আর বড় হোক, প্রতিটি মুভিংয়ের জন্য ভিন্ন ভিন্ন প্ল্যান করতে হবে। ধরুন, কেউ আপনার কোম্পানিতে ফোন করে অথবা ওয়েবসাইটে মুভিংয়ের  জন্য কোট চেয়ে অনুরোধ জানাল। আপনার ওয়েবসাইট বা গ্রাহকসেবা প্রতিনিধি গ্রাহকের দেওয়া তথ্য অনুসারে তাকে একটি আনুমানিক দর দিল। কিন্তু এরপরই শুরু হবে আপনার আসল কাজ। আপনাকে গ্রাহকের কাছ থেকে বিস্তারিত জানতে হবে অথবা সরেজমিনে গিয়ে দেখতে হবে আপনি কীভাবে একটি সফল মুভিং  প্ল্যান করবেন। গ্রাহক কোন ফ্লোর থেকে মুভ হবেন। বিল্ডিংয়ে পার্কিং সুবিধা আছে কিনা। কোন সময়ে মুভ হবেন। ভারী মালামাল নামানোর জন্য কী কী ব্যবস্থা আছে।
যেখানে মুভ হবেন সেখানে কী কী সুবিধা-অসুবিধা আছে। কোন মালামালগুলো প্রথমে স্থানান্তর করতে হবে। মুভিংয়ের জন্য কোনো বাড়তি কাজ করতে হবে কিনা।  হলে তার জন্য গ্রাহককে কী পরিমাণ বাড়তি অর্থ দিতে হবে। এই সব কিছুই আপনাকে পরিকল্পনা করতে হবে। এ ছাড়া প্রতিদিনের অভিজ্ঞতা ও গবেষণাকে কাজে  লাগিয়ে আপনার সেবাকে কীভাবে উন্নত থেকে উন্নতর করতে পারেন সেদিকে মনোযোগ দিতে হবে। আপনার যদি ব্যবসা করার পূর্ব অভিজ্ঞতা না থাকে তাহলে কীভাবে ব্যবসা স্থাপন করতে হয়, কীভাবে ব্যবসায়িক পরিকল্পনা তৈরি করবেন, কীভাবে আর্থিক ব্যবস্থাপনা, বাজারজাত, গ্রাহকসেবা, পণ্য বা সেবার মূল্য নির্ধারণ  করবেন সেগুলো নিয়ে কোনো ব্যবসা পরামর্শকের সঙ্গে আলোচনা করে নিতে পারেন।

আপনার গ্রাহক কারা?
এটা সত্য যে, যিনি মুভ হবেন তিনিই আপনার গ্রাহক। ব্যবসার ক্ষেত্রে আপনাকে গ্রাহক টার্গেট করতে হবে। আপনি ইচ্ছা করলে নিচের গ্রাহকের তালিকা থেকে যেকোনো একটিকে টার্গেট করে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারেন বা সব গ্রাহকদের টার্গেট করে শুরু করতে পারেন। তবে গ্রাহক অনুসারে আপনাকে বাড়তি  প্রস্তুতি নিতে হতে পারে। প্রথম দিকে একটি নির্দিষ্ট গ্রাহক টার্গেট করে শুরু করে ব্যবসা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে গ্রাহকের পরিসরও বাড়াতে পারেন। যেসব গ্রাহকদের টার্গেট করে আপনি ব্যবসা শুরু করতে পারেন—

আবাসিক পরিবার।
ব্যবসায়ী (আমদানিকারক, রপ্তানিকারক, সরবরাহকারী, পাইকারি বিক্রেতা ও সাধারণ বিক্রেতা)।
করপোরেট প্রতিষ্ঠান।
ছোট ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান।
সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী।

আপনার পণ্য/সেবা কী কী?
আধুনিক মুভিং কোম্পানিগুলো শুধু তাদের গ্রাহকদের স্থানান্তরেই সাহায্য করে না বরং মুভিং হতে সকল প্রকার সহযোগিতা করে থাকে। আপনার মুভিং
কোম্পানিতে যেসব পণ্য/সেবা যোগ করতে পারেন—
মুভিং সরঞ্জাম (মুভিং বক্স, ব্ল্যাংকেট, টেপ, মুভিং প্লাস্টিক, কাঁচি, ব্লেড, হ্যান্ড কার্ট, প্যাকেজিং সাপ্লাই ইত্যাদি)।
মুভিং হওয়ার মালামাল ও যন্ত্রপাতি (মুভিং হওয়ার ট্রাক, ভ্যান, কার্ট, অফিস সাপ্লাই ইত্যাদি)।
স্থানীয় ও লম্বা দূরত্বে স্থানান্তর।
ভারী ও বড় যন্ত্রপাতি মুভিং।
আপনার মুভিং ব্যবসার সঙ্গে এই সব পণ্য/সেবার সংযোজন শুধু গ্রাহকদেরই উপকৃত করবে তা নয়, বরং এটি হতে পারে আপনার ব্যবসার জন্য বাড়তি উপার্জন।
সুতরাং আপনার ব্যবসার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট যেকোনো পণ্য/সেবা আপনি যোগ করতে পারেন।

কী রকম খরচ হতে পারে?

মুভিং কোম্পানি স্থাপনের জন্য আপনার কিছু স্থায়ী খরচ আছে। এ ছাড়া প্রতিটি মুভিংয়ের জন্য আলাদা আলাদা খরচ হবে। মুভিং কোম্পানির জন্য সবচেয়ে বড় ব্যয়  হলো মুভিং পরিবহন (ট্রাক/লরি) ক্রয় করা। আপনি যদি শুরুতে ক্রয় করতে না পারেন তাহলে প্রতিটি মুভিংয়ের ধরন বুঝে পরিবহন ভাড়া করতে পারেন।
এ ছাড়া মুভিংয়ের মালামাল সুরক্ষার জন্য আপনার কিছু যন্ত্রপাতি ও উপাদান লাগবে। যেমন মুভিং ব্ল্যাংকেট, মুভিং বক্স, মুভিং প্লাস্টিক, ব্লেড/কাঁচি, টেপ, হ্যান্ড কার্ট, পুস কার্ট ইত্যাদি। কোম্পানি স্থাপনের জন্যও কিছু খরচ হবে যেমন কোম্পানি গঠন, লাইসেন্স, অনুমোদন, পরামর্শক নিয়োগ ইত্যাদি। তবে প্রথম থেকে যে অফিস নিতে হবে এমনটি নয়। আপনি চাইলে ঘরে থেকেও শুরু করতে পারেন। অফিস নিয়ে শুরু করুন আর ঘরোয়াভাবে শুরু করুন আমার পরামর্শ হলো নিজের অনলাইনে উপস্থিতি রাখুন। কোম্পানির ওয়েবসাইট ও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সহজে গ্রাহকের কাছে পৌঁছাতে পারবেন। এগুলোকে গ্রাহকবান্ধব ও আধুনিক হিসেবে তৈরি করতে হবে যাতে গ্রাহকেরা সহজে কোট এবং সকল প্রয়োজনীয় তথ্য পেতে পারে।

সরবরাহকারী খুঁজুন
আপনি হয়তো শুরুতেই অনেক মূলধন নিয়ে নামতে পারবেন না। এ জন্য আপনার উচিত হবে আপনার কাজের জন্য সরবরাহকারী খোঁজা। যেমন শুরুতেই একটি মুভিং ট্রাক কেনা আপনার জন্য অনেক ব্যয়বহুল। তাই আপনি কোনো ট্রাক মালিকের সঙ্গে চুক্তি করে নিতে পারেন। সরবরাহকারীদের সঙ্গে চুক্তি করার সময় বাজার মূল্য ও শর্তাবলি খেয়াল রাখবেন। উন্নত বিশ্বে মুভিং কোম্পানির ট্রাক চালকেরা বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। এ জন্য খেয়াল রাখবেন যাতে প্রতিটি মুভিংয়ে একজন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত বা মুভিংয়ে জানাশোনা লোক থাকে। ট্রাক ভাড়া করেন কিংবা মুভিং যন্ত্রপাতি ভাড়া করেন, খেয়াল রাখবেন তা যেন আপনার বাজেটের মধ্যে থাকে। না হলে আপনাকে লোকসান গুনতে হতে পারে। আপনি যখন গ্রাহকদের মুভিংয়ের জন্য দর দেবেন সেটা যেন সবকিছুর বাজার মূল্য হিসাব করে নির্ধারণ করেন।

কীভাবে লোকবল নিয়োগ করবেন?
মুভিংয়ের কাজ অনেক ঝুঁকিপূর্ণ কাজ। চেষ্টা করুন মুভিংয়ে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ও শারীরিকভাবে সামর্থ্যবান লোকদের এ কাজে নিয়োগ করার জন্য। মুভিংয়ে
অংশগ্রহণকারী লোকদের জন্য আপনার নিজস্ব ট্রেনিং ব্যবস্থা ও সুরক্ষা উপাদান থাকতে হবে। মুভিং কর্মচারীদের জন্য সুরক্ষাকে এক নম্বর প্রাধান্য দিতে হবে।
 প্রথম দিকে অফিস কাজগুলো নিজেরটা নিজে করতে চেষ্টা করুন, কোম্পানি বড় হওয়ার সঙ্গে একজন অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট নিয়োগ করুন। যদি পার্টনারশিপে  ব্যবসা শুরু করেন তবে উভয়ের কাজ ভাগ করে নিন।

শেষ কথা
দেশে প্রচলিত অনেক মুভিং কোম্পানি রয়েছে। কিন্তু আপনাকে প্রচলিতর বাইরে এসে এমন কিছু তৈরি করতে হবে যা এই ব্যবসায় একটি ব্র্যান্ড হয়, যার ওপর
মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস থাকবে, যাকে মানুষ একনামে চিনবে। গ্রাহকসেবাকে এক নম্বর প্রাধান্য দিতে হবে যেটা আপনাকে প্রতিযোগিতার বাজারে টিকে থাকতে ও সফল ব্র্যান্ডিং এ সাহায্য করবে। সব সময়ই গ্রাহকদের জন্য বাড়তি কিছু বা বাড়তি সেবা দেওয়ার চেষ্টা করুন। এটা আপনার জন্য সরাসরি মার্কেটিং হিসেবে কাজ করবে।
আপনার ব্যবসা আপনার উন্নতি, পরিবারের উন্নতি, দেশের উন্নতি। আপনার ব্যবসার জন্য শুভকামনা।


পাইকারি পণ্য কিনুন

Leave a Comment:

Comment as:

alibaba & Import Export expert

সি এন্ড এফ, আমদানি, আলিবাবা নিয়ে যেকোনো সমস্যায় আমাকে ফেসবুকে মেসেজ করুন

এখানে ক্লিক করুন
© 2020 eibbuy. All Rights Reserved.
Developed By Takwasoft